Breaking News
Home / জেলার সংবাদ / বরিশাল জেলা / কেরা‌নীগঞ্জ থে‌কে পা‌লি‌য়ে পটুয়াখালী, আটক শিশু-নারীসহ ১৪

কেরা‌নীগঞ্জ থে‌কে পা‌লি‌য়ে পটুয়াখালী, আটক শিশু-নারীসহ ১৪

ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে পটুয়াখালীতে আসা শিশু–নারীসহ ১৪জনকে শনিবার রাতে আটক করেছে পুলিশ। এই ব্যক্তিরা কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন ওয়ার্কশপের কর্মী। এখন কোনো কাজ নেই, ঘরে খাবারও শেষ। আবার বাড়িওয়ালাকে ভাড়া দিতে পারেননি। তাই পালিয়ে বাড়ির পথে রওনা দেন তাঁরা।

পটুয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ বিল্লাল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, সি‌ভিল সার্জ‌নের সহায়তায় আটক লোকজনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টিনে রাখা হয়েছে। রোববার সবার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

আটক হওয়া লোকজনের বাড়ি পটুয়াখালীর বিভিন্ন উপজেলায়। তাঁদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এই ব্যক্তিরা কেরানীগঞ্জের জিনজিরা এলাকার বি‌ভিন্ন ওয়ার্কশপে কাজ ক‌রে জীবিকা নির্বাহ করেন। কিন্তু করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে এখন সব ওয়ার্কশপ বন্ধ। ফলে তাঁরা এক মাস ধ‌রে বেকার। ওদিকে ঘরে থাকা খারারও শেষ হয়ে গেছে। পাঁচ‌ দিন ধ‌রে তাঁরা ঠিকমতো খাবার পান‌নি। আবার বাড়িওয়ালাকে ঘরভাড়া দি‌তে পারছিলেন না। এ অবস্থায় কোনো উপায় না পে‌য়ে বা‌ড়িওয়ালা‌র অগোচরে পা‌লিয়ে এসেছেন।

Lifebuoy Soap

যাত্রা শুরু হয় শুক্রবার ভোররাতে সেহ‌রি খাওয়ার পরপরই। জিনজিরা এলাকা থেকে অর্ধশতাধিক নারী-পুরুষ পরিবারসহ পটুয়াখালীর উদ্দেশে রওনা হন। ট্রলারে নদী পার হয়েছেন। এরপর সিএন‌জিচালিত অটোরিকশা, অ্যাম্বুলেন্স, ভাড়ায় চালিত মোটরসাই‌কেলসহ বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন যানবাহনে চড়ে পটুয়াখালীতে পৌঁছাতে সক্ষম হন তাঁরা। শনিবার রাতে পটুয়াখালীতে পৌঁছানোর আগে পথে কোথাও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বাধার মুখে পড়তে হয়নি। পটুয়াখালীতে পৌঁছানোর পর সবাই নি নিজ গ্রামের দিকে রওনা হন। কিন্তু রাত সাড়ে নয়টার দিকে পটুয়াখালী সদর রোডের প্রেসক্লাব এলাকা অতিক্রম করার সময় এই ১৪ জন পুলিশ হাতে আটক হন।

মোসা. সাথী আক্তার নামের একজন বলেন, ‘ঘরের খাবার ফুরিয়ে গেছে। ঘরের মালিককে ভাড়া দি‌তে পা‌রছিলাম না। কাজ কবে শুরু হবে তাও কেউ জানে না। এসব কথা চিন্তা করেই আমরা গ্রামে ফেরার সিদ্ধান্ত নিই। গাড়িভাড়ার জন্য বাড়ির লোকজনের কাছ থেকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা নিয়েছি।’

আটক হওয়া ১৪ জনের মধ্যে শিশু ৫ জন, নারী ৪ জন ও পুরুষ ৫ জন। শনিবার দিনভর কেউ কিছু খাননি। ক্ষুধায় সবাই কাতর হয়ে প‌ড়েন। বিষয়টি জানতে পেরে পু‌লিশ তাৎক্ষ‌ণিকভাবে তাঁ‌দের হালকা খাবা‌রের ব্যবস্থা ক‌রে। পরে স্থানীয় কয়েকজন নিজেদর বাড়ি থে‌কে রাতের খাবার এনে বিতরণ করেন। পুলিশ ১৪ জনকেই শহরের লতিফ মিউনিসিপ্যাল সে‌মিনারী স্কুলে নিয়ে গিয়ে রাখে।

সিভিল সার্জন মোহাম্মদ জাহাংগীর আলম বলেন, ১৪ জনেরই নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। আগামী ১৪ দিন তা‌ঁদের ওই স্কুলে কোয়ারেন্টি‌নে থাকতে হবে।

About dhakacrimenews

Check Also

আপত্তিকর স্ট্যাটাস : পাঁচজনের বিরুদ্ধে পঙ্কজ দেবনাথের মামলা

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপত্তিকর স্ট্যাটাস দেয়ার অভিযোগে পাঁচজনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছেন বরিশাল-৪ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *