Home / রাজনীতি / বিএনপি ছুতো খুঁজছে: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি ছুতো খুঁজছে: ওবায়দুল কাদের

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে বিএনপি ছুতো খুঁজছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, দুই সিটি নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ করতে তারা একটা ছুতো খুঁজছে। নির্বাচনে হারলেই ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) খারাপ এবং জিতলে ইভিএম ভালো, বিএনপির এ ধরনের অবস্থানও সঠিক নয়।

বিএনপি দিবাস্বপ্ন দেখছে জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি সব সময় দিবাস্বপ্ন দেখে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিএনপি বলেছিল, তাদের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। ফল কী হয়েছে তা জাতি দেখেছে।দুই সিটি নির্বাচনেও বিএনপিকে জনগণ প্রত্যাখান করবে মন্তব্য করে তিনি বলেন, এবারও দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আগে বিএনপি বলছে, তাদের প্রার্থীদের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। বিএনপির স্বপ্ন দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে। কারণ ১১ বছর ধরে ক্ষমতায় আওয়ামী লীগ। সরকার দলীয় প্রার্থী ছাড়া অন্য কাউকে ভোট দিলে সিটি করপোরেশনের উন্নয়ন হবে না বলে নগরবাসী জানে। তারা জানে তাদের (বিএনপি) প্রার্থীকে ভোট দিলে কোনো উন্নয়ন হবে না। তাদের ভোট দিয়ে কী লাভ?

ইভিএমের নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রতিটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ অন্য নির্বাচন কমিশনাররা আলাপ-আলোচনা করেছেন ইভিএম নিয়ে। তখন ইভিএম নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তখন কিন্তু বিএনপি এ বিষয়ে কোনো প্রতিবাদ করেনি।

ইভিএম নিয়ে বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, দুই সিটি নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতি নিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যে মন্তব্য করেছেন তা বিভ্রান্তিকর। কারণ তিনি নিজেও ইভিএম পদ্ধতির ভোটে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন বগুড়া সদর আসন থেকে। সর্বশেষ ইভিএমে বগুড়া জেলার দুপচাঁচিয়া পৌরসভায় যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে, তাতে বিএনপির প্রার্থী বিপুল ভোটে জয়লাভ করেছেন। ইভিএমে সুষ্ঠু নির্বাচনের এর চেয়ে প্রকৃষ্ট উদাহরণ আর কী হতে পারে?

দুই সিটিতে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের বিষয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা ক্লিন ইমেজের দুজন প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েছি। জনগণ স্বচ্ছ ভাবমূর্তির প্রার্থীকে পছন্দ করে। আগামী নির্বাচনে দুই সিটিতে মেয়র হিসেবে আমাদের প্রার্থীরা বিজয়ী হবেন বলে আমি আশা করি।

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, সাখাওয়াত হোসেন শফিক, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সবুর, উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

About dhakacrimenews

Check Also

যেকোনো পরিস্থিতিতেই মাঠে থাকব: তাবিথ

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়াল শেষ পর্যন্ত নির্বাচনী মাঠে থাকার প্রত্যয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *