Breaking News
Home / ক্রাইম নিউজ / নুসরাত হত্যার মূল সন্দেহভাজন নুর উদ্দিনও গ্রেপ্তার

নুসরাত হত্যার মূল সন্দেহভাজন নুর উদ্দিনও গ্রেপ্তার

ফেনীর সোনাগাজীর উত্তর চর চান্দিয়া গ্রামের নুর উদ্দিনকে ময়মনসিংহ থেকে গ্রেপ্তারের পর শনিবার সকালে সংবাদ সম্মেলনে তা জানায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন- পিবিআই।

পিবিআই জানায়, এ নিয়ে নুসরাত হত্যামামলার সাত আসামি গ্রেপ্তার হয়েছে।

নুসরাতের ভাইয়ের করা মামলার আট আসামিদের মধ্যে হাফেজ আবদুল কাদের নামে একজন এখনও পলাতক। তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হচ্ছে বলে পিবিআই কর্মকর্তারা জানান।

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ এস এম সিরাজ-উদ-দৌলার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের মামলা প্রত্যাহার না করায় গত ৬ এপ্রিল মাদ্রাসার ছাদে ডেকে নিয়ে নুসরাতের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। পাঁচ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে গত ১০ এপ্রিল রাতে ঢাকায় মারা যান এই তরুণী।

নুসরাতের পরিবারের করা যৌন হয়রানির মামলায় গত ২৭ মার্চ অধ্যক্ষ সিরাজকে গ্রেপ্তারের পর দিন তার মুক্তির দাবিতে সোনাগাজী উপজেলা সদরে যে মিছিল-সমাবেশ হয়েছিল, তার সংগঠক ছিলেন ওই মাদ্রাসার সাবেক ছাত্র নূর উদ্দিন।

বোরকা পরা যারা নুসরাতকে ডেকে নিয়ে তার গায়ে আগুন দিয়েছিল, তাদের মধ্যে নূর উদ্দিনও ছিলেন বলে সন্দেহ করা হয়।

ধানমণ্ডিতে পিবিআই কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে ডিআইজি বনজ কুমার মজুমদার বলেন, “আসামিদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী দুটি কারণে নুসরাতকে হত্য করা হয়। এর একটি আলেম সমাজকে হেয় করা। অপর কারণটি হচ্ছে আসামি শাহাদাত হোসেন শামীমের (২০) প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান।”

শামীমকে শুক্রবার রাতে ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। নূর উদ্দিনের মতো শামীমও ছিলেন অধ্যক্ষ সিরাজের ঘনিষ্ঠ।

ডিআইজি বনজ বলেন, “ওই দিন অন্তত চারজন বোরকা পরে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এতে অন্তত একজন মহিলা ছিল এটা নিশ্চিত।”

About dhaka crimenews

Check Also

কারারক্ষীকে ইয়াবাসহ আটক

ঢাকা ক্রাইম নিউজ: ইয়াবাসহ চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের এক কারারক্ষীকে ইয়াবাসহ আটক করেছে পুলিশ। আটক কারারক্ষীর ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *