Home / অর্থনীতি / সুবিধা বঞ্চিতদের মাতৃত্বকালীন সেবার লক্ষ্যে কাজ করেছে মেরি স্টোপস ও ডিএফআইডি

সুবিধা বঞ্চিতদের মাতৃত্বকালীন সেবার লক্ষ্যে কাজ করেছে মেরি স্টোপস ও ডিএফআইডি

রিপোটার : রফিকুল ইসলাম

এমডিজি লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী ২০৩০ সালের মধ্যে সন্তান জন্মের সময় মাতৃমৃত্যু হার প্রতি লাখে ৭০ এ নামিয়ে আনতে হবে। সে লক্ষ্য পূরণে ২০১৩ সালে ‘Urban Health : Strengthening care for poor mothers and newborns in Bangladesh’ নামের একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছিল মেরী স্টোপস বাংলাদেশ। প্রকল্পটিতে অর্থায়ন করে ডিএফআইডি।

চারটি মূল সূচকে শতভাগেরও বেশি সাফল্য অর্জনের মাধ্যমে সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে প্রকল্পটি। এই সাফল্যের তথ্য তুলে ধরার লক্ষ্যে, রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজন করা হয়, প্রকল্প সমাপনী অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ডা. এ ই মোহাম্মদ মহিউদ্দীন ওসমানী, জয়েন্ট চিফ, পরিকল্পনা, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়।

পাঁচ বছরব্যাপী প্রকল্পের মাধ্যমে, বাংলাদেশের ১২টি জেলায় ১২টি মেটারনিটি ক্লিনিক, ৩৬টি রেফারাল ক্লিনিক এবং ৪৩২টি স্যাটেলাইট ক্লিনিকের সাহায্যে, দরিদ্র ও সুবিধা বঞ্চিত জনগোষ্ঠীকে সেবা দিয়েছে মেরী স্টোপস বাংলাদেশ। এই প্রকল্পের আওতায় সুস্থভাবে জন্মগ্রহণ করেছে ৬০ হাজার ৭৯৮ জন শিশু, কমপক্ষে ৪ টি প্রসবপূর্ব সেবা পেয়েছেন ১,২৯,১৩০ জন গর্ভবতী নারী, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রসবের সেবা পেয়েছেন ৭৩,৪৪৬ জন নারী এবং পরিবার পরিকল্পনা সেবা দেওয়া হয়েছে ১১,৯৬,৭১৪ টি পরিবারকে। প্রকল্পের অন্যতম অনুষঙ্গ ‘সুযোগ কার্ড’ এর মাধ্যমে বিনা মূল্যে সেবা পেয়েছেন ৮২.২৫ শতাংশ সুবিধাভোগী।

প্রকল্পের সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন DGFP’র মেটারনাল অ্যান্ড চাইল্ড হেলথ সার্ভিসেসের ডিরেক্টর এবং মেটারনাল অ্যান্ড চাইল্ড রিপ্রোডাকটিভ অ্যান্ড এডালুসেন্ট হেলথ’-এর লাইন ডিরেক্টর ড. মোহাম্মদ শরীফ। বিশেষ অতিথি হিসাবে আরও উপস্থিত ছিলেন, ডিএফআইডি’র হেলথ অ্যাডভাইজর ড. সেহলিনা আহমেদ।

প্রকল্পটি সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য, সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ দিয়েছেন মেরী স্টোপস বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর মাসরুরুল ইসলাম।

About dhaka crimenews

Check Also

যুক্তরাজ্যে খাবারের দাম বাড়ার আশঙ্কা

ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের গভর্নর মার্ক কারনের আশঙ্কা, ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া বিশৃঙ্খল হলে যুক্তরাজ্যে খাদ্যের দাম ৫ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *