Breaking News
Home / জেলার সংবাদ / সাতক্ষীরায় কলেজছাত্র হত্যা : ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড

সাতক্ষীরায় কলেজছাত্র হত্যা : ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড

স্টাফ রিপোটার: সাতক্ষীরার চাঞ্চল্যকর কলেজছাত্র গৌতম হত্যা মামলায় চার আসামিকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। এ সময় মামলার আরও ছয় আসামিকে খালাস দেয়া হয়েছে।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সাতক্ষীরা জেলা ও দায়রা জজ সাদিকুল ইসলাম তালুকদার এ রায় দেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার বহেরা গ্রামের আব্দুল আলিমের ছেলে আলী আহম্মেদ শাওন, ভাড়খালি গ্রামের আব্দুল করিম মোড়লের ছেলে শাহাদাৎ হোসেন, মহাদেবনগর গ্রামের রেজাউল শেখের ছেলে সাজু শেখ ও নাজমুল হোসেন।

খালাসপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- ওমর ফারুক, নূর আহম্মেদ মুক্ত, মহসিন আলী, কবিরুল ইসলাম মিঠু, জামসেদ আলী ও ফিরোজা খাতুন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৬ সালের ১৩ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ৮টার দিকে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণের দাবিতে সদর উপজেলার ঘোনা ইউনিয়নের মহাদেবনগর গ্রামের গনেশ সরকারের ছেলে কলেজছাত্র গৌতম সরকারকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে হত্যা করা হয়। পরে মরদেহের বিভিন্ন স্থানে দড়ি দিয়ে ১২টি ইট ঝুলিয়ে পার্শ্ববর্তী মোকলেছুর রহমানের পুকুরে বাঁশের সঙ্গে বেঁধে ডুবিয়ে দেয়া হয়।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা গনেশ সরকার বাদী হয়ে আলী আহম্মেদ শাওন, শাহাদাৎ হোসেন, সাজু শেখ, নাজমুল হোসেন, মুহসিন আলী ও কবিরুল ইসলাম মিঠুর নামে ২০১৬ সালের ১৬ ডিসেম্বর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আসামিদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পরদিন ওমর ফারুক, নূর আহম্মেদ মুক্ত ও জামসেদের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি সম্পূরক অভিযোগ দায়ের করা হয়। নাজমুল, শাহাদাৎ ও সাজু শেখ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

এ মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে উল্লিখিত চার আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত তাদেরকে ফাঁসির আদেশ দেন। এছাড়া বাকি ছয় আসামিকে খালাস দেয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট তপন কুমার দাস জানান, রায় ঘোষণার সময় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত শাহাদাৎ হোসেন ও নাজমুল হোসেন আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তবে আলী আহম্মেদ শাওন ও সাজু শেখ পলাতক রয়েছেন।

About dhaka crimenews

Check Also

‘আওয়ামী লীগ পাল্টাপাল্টি সমাবেশ করবে না’

স্টাফ রিপোটার:’সমাবেশের নামে বিএনপি যদি রাস্তায় বিশৃঙ্খলা ও অবরোধ করে তাহলে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা যথাযথ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *