Breaking News
Home / রাজনীতি / তারেক রহমানকে সরকার চাইলেই দেশে আনতে পারবে না

তারেক রহমানকে সরকার চাইলেই দেশে আনতে পারবে না

এম আই মিন্টু-

ঢাকা ক্রাইম নিউজঃ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, সরকার চাইলেই বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনতে পারবে না। কারণ তিনি ব্রিটেনে রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে খন্দকার মোশাররফ এসব কথা বলেন।

বিএনপি নেতা আরো বলেন, এমনকি প্রধানমন্ত্রী সাত দিন ব্রিটিশ হাইকমিশনের কাছে অবস্থান করলেও তাঁকে (তারেক রহমান) ফেরত আনা সম্ভব নয়।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, তারেক রহমান সব আইন মেনেই ব্রিটেনে অবস্থান করছেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী তাঁকে যেকোনো মূল্যে দেশে ফিরিয়ে আনবেন বলে একটা ধূম্রজাল তৈরি করছেন।
তারেক রহমান যুক্তরাজ্য সরকারের কাছে রাজনৈতিক আশ্রয়ে আছেন। কারণ, এ দেশের সরকার তাঁকে সহ্য করতে পারে না।

বিএনপি নেতা বলেন, ‘যত দিন না তারেক রহমান ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে বলবেন : আমি বাংলাদেশে যাব, বাংলাদেশ আমার জন্য নিরাপদ; তত দিন তাঁকে যে কেউ চাইলেই দেশে ফেরত আনা যাবে না। তারেক রহমান অবশ্য বাংলাদেশে আসবেন। এ দেশের জনগণ তাঁকে বীরের বেশে দেশে ফিরিয়ে আনবে। কিন্তু শেখ হাসিনা যেভাবে আনতে চান, সেভাবে তাঁকে ফেরত আনা কোনোভাবেই সম্ভব নয়।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি, গণতন্ত্র ও আগামী সংসদ নির্বাচন একই সূত্রে গাঁথা। কারণ, খালেদা জিয়ার মুক্তি না হলে দেশে গণতন্ত্র মুক্ত হবে না, আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। সরকার খালেদা জিয়া ও বিএনপিকে বাইরে রেখে আবার একটি পাতানো নির্বাচন করতে চায়। কিন্তু বাংলাদেশে এটি আর কখনো হবে না। এবারের নির্বাচন হবে সব দলের অংশগ্রহণে, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন।’

মোশাররফ বলেন, আওয়ামী লীগ জানে দেশে নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে তারা পরাজিত হবে। তাই তারা সব দলের অংশগ্রহণে নিরপেক্ষ ভোট দিতে ভয় পায়। তাই খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে একটি পাতানো নির্বাচন করতে চায়। কিন্তু দেশের জনগণ তাদের সেই স্বপ্ন কখনো পূরণ হতে দেবে না।

বিএনপি নেতা আরো বলেন, ‘খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। হাইকোর্ট তাঁকে জামিন দেওয়ার পরও আপিল বিভাগের মাধ্যমে তাঁর জামিন স্থাগিত করা হয়েছে। আইনের মারপ্যাঁচে খালেদা জিয়ার জামিন বিলম্বিত করা হচ্ছে। আমরা তাঁর নিঃশর্ত মুক্তি চাই।’

সাবেক এ মন্ত্রী বলেন, ‘খালেদা জিয়া অনেক বেশি অসুস্থ, তাই তাঁর সুচিকিৎসার জন্য আমরা তাঁর নিঃশর্ত মুক্তি চাই। কারণ, তিনি অনেক বেশি অসুস্থ। আমরা আশা করি, সরকার তাঁকে নিঃশর্ত মুক্তি দিয়ে নিজের ইচ্ছামতো চিকিৎসা নিতে সুযোগ দেবে।’

দোয়া মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সহসাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, মহিলা দলের সাবেক সভাপতি ও বিএনপির মহিলাবিষয়ক সম্পাদিকা নূরে আরা সাফা।

About dhaka crimenews

Check Also

জনগণের গ্যাসের দাবি পূরণ করার সময় এসেছে

জুয়েল রানা- ঢাকা ক্রাইম নিউজঃ আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, কসবাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল পৌর এলাকায় ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *