Home / অর্থনীতি / নাসার প্রতিবেদন: ১০০ বছর পর সমুদ্রগর্ভে বিলীন হবে এই শহরগুলি!

নাসার প্রতিবেদন: ১০০ বছর পর সমুদ্রগর্ভে বিলীন হবে এই শহরগুলি!

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানিয়েছে, হিমবাহ আর দুই মেরুর বরফ দ্রুত হারে গলার ফলে ১০০ বছর পর সমুদ্রগর্ভে এই শহরগুলি তলিয়ে যাবে। কোনও চিহ্নই থাকবে না ওই শহরগুলোর। এর মধ্যে আছে বাংলাদেশের বন্দর নগরী চট্টগ্রামের নামও।

১. অনিবার্য ধ্বংসের মুখে দাঁড়িয়ে প্রহর গুণছে ভারতের কর্ণাটক রাজ্যেল ম্যাঙ্গালোর শহরটি। উষ্ণায়নের ফলে ম্যাঙ্গালোরে সমুদ্রের পানির স্তর ১০০ বছর পর বাড়বে ১৫.৯৮ সেন্টিমিটার। যার ফলে একেবারেই তলিয়ে যাবে ম্যাঙ্গালোর শহর। কোনও চিহ্নই থাকবে না ওই শহরের আগামী শতাব্দীতে।

২. ভারতের বাণিজ্য নগরী মুম্বাইও বাঁচবে না ধ্বংসের হাত থেকে। নাসা জানিয়েছে, যে হারে সমুদ্রের পানির স্তর বাড়ছে, তাতে ১০০ বছর পর অনিবার্য ভাবেই পানির অতলে তলিয়ে যাবে ভারতের মুম্বাই নগরী। তলিয়ে যাবে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের বন্দর শহর কাকিনাড়াও।

৩. অন্যতম গবেষক নাসার বিজ্ঞানী সুরেন্দ্র অধিকারী বলছেন, রেহাই পাবে না বাংলাদেশের বন্দর নগর চট্টগ্রামও। বিশ্বের বাকি ২৯২টি শহরের সঙ্গে চট্টগ্রামও হারিয়ে যাবে পানির অতলে।

৪.  তলিয়ে যাবে হংকং শহরও। নাসার গবেষণায় এমনটাই দাবি করা হয়েছে।

৫. ১০০ বছর পর সমুদ্রে পুরোপুরি ডুবে যাবে দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলঙ্কার রাজধানী, বন্দর শহর কলম্বোও।

৬. নাসার সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে, সমুদ্রের পানির স্তর আর ১ মিটার বাড়লেই ভারতীয় উপমহাদেশের অন্তত ১৪ হাজার বর্গ কিলোমিটার এলাকা সমুদ্রের অতলে তলিয়ে যাবে। হারিয়ে যাবে চীনের অন্যতম ব্যস্ত বন্দর শহর সাংহাই।

৭. ১০০ বছর পর তলিযে যাবে স্ট্যাচু অফ লিবার্টির ঝাঁ চকচকে শহর নিউ ইয়র্কও।

৮. ২১০০ সালে সমুদ্রতল উঠে আসবে ০.৫১ মিটার থেকে ১.৩১ মিটার। তার ফলে পানির অতলে তলিয়ে যাবে লন্ডন শহর।

৯. যে হারে দ্রুত হিমবাহ আর দুই মেরুর বরফ গলছে, তাতে নাসার আশঙ্কা, ১০০ বছর পর সমুদ্রগর্ভে তলিয়ে যাবে জাপানের রাজধানী শহর টোকিও।

 

About dhaka crimenews

Check Also

অর্ধ শতাধিক ওয়েবসাইট বন্ধের নির্দেশ

রিপোটার : আবদুল কালাম আজাদ মিথ্যা তথ্য দিয়ে নির্বাচনের আগে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ৫৮টি ওয়েবসাইট ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *