Home / জেলার সংবাদ / যানজটে স্থবির ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক

যানজটে স্থবির ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক

ঢাকা ক্রাইম নিউজঃ ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক যানজটে প্রায় স্থবির হয়ে আছে। গতকাল শুক্রবার বিকেল থেকে শুরু হওয়া এই যানজট রাতে আরও বাড়ে।

আজ শনিবার সকালে মহাসড়কে যানবাহন প্রায় স্থবির থাকে। গাড়ির চাপ বেড়ে যাওয়া ও মহাসড়কে তিনটি ট্রাক বিকল হওয়ায় এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

আজ সকাল ছয়টা থেকে সাতটা পর্যন্ত মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে যানবাহন স্থবির হয়ে থাকতে দেখা যায়। যানজটে ভুক্তভোগী যানবাহনের চালকেরা জানান, ঈদ শেষে তিন দিন ধরে কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছে মানুষ।

তবে গতকাল দুপুরের পর থেকে তা বৃদ্ধি পায়। যাত্রীদের আনা-নেওয়া করতে যানবাহনের চাপ বেড়ে যায়। দুপুরের পর টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা থেকে মির্জাপুর উপজেলার শেষ প্রান্ত জামুর্কী পর্যন্ত প্রায় ২৬ কিলোমিটার এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়। সন্ধ্যার পর মির্জাপুর থেকে গোড়াই পর্যন্ত প্রায় আট কিলোমিটার এলাকাতেও যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

এরই মধ্যে রাত নয়টার দিকে মির্জাপুর উপজেলার জামুর্কী, ১১টার দিকে মির্জাপুর বাইপাসের বাওয়ার রোডের মাথায় ও দেওহাটাতে তিনটি ট্রাক বিকল হয়। এতে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটে যানজট তীব্র আকার ধারণ করে।

রাতে যানজট একপর্যায়ে মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই শিল্পাঞ্চলের স্কয়ার এলাকা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব প্রান্ত পর্যন্ত প্রায় ৬০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বিস্তৃত হয়।

যানজটে স্থবির হয়ে আছে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক। সুযোগ বুঝে ঘুমিয়ে নিচ্ছেন চালক। ছবিটি আজ শনিবার সকাল ছয়টার দিকে মির্জাপুর বাইপাস বাসস্টেশন থেকে তোলা।

আজ সকাল ছয়টার দিকে উভয়মুখী যানবাহন চলাচল বন্ধ দেখা গেছে। তবে পৌনে সাতটার দিকে ঢাকাগামী যানবাহন থেমে থেমে চলতে থাকলেও টাঙ্গাইলগামী যান একেবারেই স্থবির দেখা গেছে।

যানজটের কারণে চালকের আসনে অনেককে ঘুমিয়ে থাকতে দেখা গেছে। নারী ও শিশুদের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বেশি। প্রচণ্ড গরমের কারণে কোনো কোনো যাত্রীকে গাড়ি থেকে নেমে রাস্তার পাশে মাটিতে কাপড় বিছিয়ে ঘুমাতে দেখা গেছে।

এ ছাড়া সকাল সাড়ে সাতটার দিকে হঠাৎ পাঁচ মিনিটের মতো সময় ধরে বৃষ্টি হয়। এতে বাসের ছাদ ও ট্রাকে থাকা যাত্রীদের দুর্ভোগ আরও বেড়ে যায়।

যানজটে ভুক্তভোগী বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের মাঠকর্মী আবু রায়হান জানান, রাত ১২টার পর তাঁদের ঢাকাগামী বাস বঙ্গবন্ধু সেতু পার হয়ে যানজটে পড়ে।

আজ ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে মির্জাপুর পৌঁছান। অথচ এই রাস্তাটুকু পাড়ি দিতে সর্বোচ্চ এক ঘণ্টা সময় লাগার কথা ছিল।

আজ সকাল ছয়টায় মির্জাপুর বাসস্টেশন এলাকায় ঢাকা থেকে কুড়িগ্রামগামী এস এন পরিবহনের বাসচালক কার্তিক কাজলের সঙ্গে কথা হয়। তিনি জানান, রাত আড়াইটা থেকে একই স্থানে বসে আছেন। গাড়ি চলছে না।

মির্জাপুরের গোড়াই হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) গোলাম কিবরিয়া জানান, ঢাকার দিকে যানবাহন চললেও টাঙ্গাইলের দিকে যান চলছে না।

মহাসড়কে চালকেরা যানবাহন নিয়ম মেনে চালাচ্ছেন না। চালকেরা একটু সুযোগ পেলেই ঘুমিয়ে পড়ছেন। এতে যান ঠিকমতো চলছে না।

মির্জাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এস এম তুহিন আলী জানান, রাস্তায় যান চলাচল স্বাভাবিক হতে কিছু সময় লাগবে।

About Dhakacrimenews24

Check Also

গোপালগঞ্জে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৬

ঢাকা ক্রাইম নিউজঃগোপালগঞ্জে নৈশ কোচ ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে নারীসহ ৬ জন নিহত হয়েছেন। এ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *